শনিবার, ১১ জুলাই, ২০২০||২৭ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ০৭:১৯ পূর্বাহ্ন  coxbazar24news@gmail.com

প্রচ্ছদ » কক্সবাজার সংবাদ » ওয়ালটন মোবাইল ফোন আঞ্চলিক ডিস্ট্রিবিউটর সম্মেলন ২০১৯ সম্পন্ন

ওয়ালটন মোবাইল ফোন আঞ্চলিক ডিস্ট্রিবিউটর সম্মেলন ২০১৯ সম্পন্ন

আপডেট : ২৩ আগস্ট, ২০১৯ , সময়ঃ ১২:১৯ পূর্বাহ্ন

ছবি- সাংবাদিক সাহেদ ফেরদৌস হিরু

শাহী কামরান::

বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ওয়াল্টন মোবাইল কোম্পানীর উদ্যোগে রিজিওনাল ডিস্ট্রিবিউটর মিট-২০১৯ সম্পন্ন।   বৃহস্পতিবার (২২ আগষ্ট)  সন্ধ্যা ৭ টায় কক্সবাজার হোটেল প্রাসাদ প্যারাডাইস হল  রুমে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। চট্রগ্রামের আঞ্চলিক পরিচালক- আজিজুর রহমান  মিথুনের সঞ্চালনার মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানটি চট্রগ্রাম ও কুমিল্লার সকল ওয়ালটন মোবাইল ডিস্ট্রিবিউটরদের নিয়ে আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত অনুষ্টানে বেস্ট পারফরমেন্সের পুরস্কার ঘোষনা ও ক্রেস্ট তুলে দেন উপস্থিত অতিথিরা ।   উক্ত  ডিস্ট্রিবিউটর সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন  হেড অফ সেলস- আসিফুর রহমান, হেড অব ব্রান্ডিং মাহবুব উল হাসান, ডেপুটি হেড অফ সেলস- মাহমুদুল হাসান,   বিভাগীয় বিক্রয় ব্যবস্থাপক আবদুল্লাহ ভুইয়া সোহাগ, আঞ্চলিক  বিক্রয় ব্যবস্থাপক,টেরিটরি সেলস অফিসার,আর এস ও, ইনচার্জ সহ সকল ডিস্ট্রিবিউটরবৃন্দ।  

হেড অব সেলস-আসিফুর রহমান খান তার
বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সময়ে নাগরিক জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে মোবাইল ফোন। মোবাইল ফোন ছাড়া একটি দিনও আমরা এখন ঠিকভাবে চলতে পারি না। তাই গুরুত্বপূর্ণ এই ডিভাইসটির বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানে যারা নিয়োজিত আছেন, তাদের সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে উন্নত সেবা দিয়ে গ্রাহক সন্তুষ্টি অর্জনই আমাদের মূল লক্ষ্য। তিনি মোবাইল ফোন বিক্রয় বৃদ্ধি ও সার্ভিসের ব্যাপারেগুরুত্ব দেন। সবার সাথে মার্কেটিং ও বিভিন্ন সমসাময়িক বিষয় নিয়ে গুরুত্বপূর্ন আলোচনা করেন। 

ডেপুটি হেড অফ সেলস- মাহমুদুল হাসান বলেন, ওয়ালটন মোবাইল সেবা কার্যক্রম মূলত ২০১০ সাল থেকে শুরু করে। প্রথম দিকে আমরা ফিচার ফোনের মাধ্যমে বাজারে অংশগ্রহণ করি। ২০১২ সালে আমরা ওয়াল্টন প্রিমো নামে প্রথম স্মার্টফোন বাজারে আনি স্মার্টফোনটি অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত হত এবং এটি সংস্করণে চলত। প্রিমো এক্স আমাদের প্রধান ফ্ল্যাগশিপ ফোন। বর্তমানে আমরা ওয়ালটন প্রিমো নামেই মোবাইল প্রস্তুত করে থাকি এবং তা স্মার্টফোন নামে অবহিত করা হয়। স্মার্টফোনের পাশাপাশি আমরা ফিচার ফোনও তৈরি করে আসছি। আমাদের মোবাইল সেবা কার্যক্রম বর্তমানে ১১টি দেশে সীমাবদ্ধ থাকলেও ভবিষ্যতে তা অন্যান্য অনেক দেশে রপ্তানির পরিকল্পনা রয়েছে। আমাদের প্রধান লক্ষ্য স্বল্প মূল্যে সকলের কাছে স্মার্টফোন পৌছে দেওয়া।

বিভাগীয় বিক্রয় ব্যাবস্থাপক- আব্দুল্লাহ ভুইয়া সোহাগ বলেন, ক্রেতাদের জন্য নিত্যনতুন স্মার্টফোন  বাজারে আনার পাশাপাশি সর্বোচ্চ গ্রাহক সেবাও নিশ্চিত করছে ওয়াল্টন। শুরু থেকেই এরই ধারাবাহিকতায় প্রতিনিয়ত প্রযুক্তি পণ্য ব্যবহারকারীদের জন্য অত্যাধুনিক পণ্য বাজারে আনছে ওয়াল্টন।